Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কী সেবা কীভাবে পাবেন

  1. ১। সরকারি নার্সারীতে চারা উত্তোলন ও সরকারী মূল্যে বনজ, ফলদ ও ঔষধি চারা বিতরণ।

২। প্রতিষ্ঠান বনায়নের জন্য চারা উত্তোলন, রোপণ ও পরিচর্যা।

৩।সংযোগ সড়ক ও জনপথের রাস্তা ও বাঁধ বনায়নের চারা উত্তেলন, রোপণ ও পরিচর্যা।

৪। স্ট্রিপ বাগানে উপকারভোগী সংগঠন নির্বাচন।

৫। মেয়াদ উত্তির্ন বাগানের গাছ টেন্ডারের মাধ্যমে বিক্রয় ও ২য় আবর্তের গাছের চারা রোপণ।

৬। উপকারভোগীদের মাঝে বিধিমালা /২০০৪ মোতাবেক লভ্যাংশ বন্টন।

৭। পরিবেশ ও বন উন্নয়ন কমিটির সভা আহববান ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ।

৮। উপকারভোগীদের সরকারি সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রশিক্ষণ প্রদান।

৯। সামাজিক বনায়ন বিধিমালা লংঘনের জন্য আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ।

১০। গনসচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রতি বছর জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে বৃক্ষমেলা ও র‌্যালী পরিচালনা।

১১। সরকারী প্রতিষ্ঠানের গাছের মূল্যে নির্ধারন করা।

১২। জাতীয় পর্যায়ে বৃক্ষরোপনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত ট্রফির জন্য উপজেলা ও    জেলা পর্যায়ে হতে দরখাস্ত আহববান ও তদন্ত স্বাপেক্ষে জেলা কমিটিতে প্রেরণ।

১২। উপজেলা পরিষদের সহিত সমন্বয় সাধন ও সিদ্ধান্ত গ্রহন।

১৩। বনায়নের মাধ্যমে দারিদ্র বিমোচনে কার্যকরী ভূমিকা গ্রহণ।

১৪। প্রাকৃতিক ভারসাম্য এবং পরিবেশ ও প্রতিবেশ রক্ষায় ভূমিকা রাখা।

১৫। পরিবেশগত ছাড়পত্রসহ করাত কলের লাইসেন্স ও নবায়ন প্রদান।

১৬। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন/২০১২ এর বিধান অনুযায়ী বন্যপ্রাণী রক্ষায় কার্যকরী          পদক্ষেপ গ্রহণ।

১৭। জীববৈচিত্র সংরক্ষণে জরুরী পদক্ষেপ গ্রহণ।

১৮। ভিলিয়ান ফ্যাক্টরী, ফার্নিচার মার্ট বা টিম্বার প্রসেসিং ইউনিট স্থাপন ও পরিচালনার    জন্য করাত লাইসেন্স প্রদান ও নবায়ন করণ।

১৯। বনজদ্রব্য পরিবহন (নিয়ন্ত্রন) বিধিমালা-২০১১ অনুযায়ী  বনজদ্রব্য আহরন            অনুমতি ও চলাচল পাশ প্রদান।

২০। ইট ভাটায় অবৈধ জ্বালানী কাঠ ব্যবহারের বিষয়ে আইনানুগ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা           গ্রহণ।

২১। বন আইন ১৯২৭ বিধান অনুযায়ী বনজদ্রব্য রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা ।

২২। সরকারের বরাদ্দ প্রদান সাপেক্ষে চারা উত্তোলন ও উত্তোলিত চারা জনপ্রতিনিধির          মাধ্যমে বিনামূল্যে বিতরণ।